মেনু নির্বাচন করুন
নোটিশ

নোভেল করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় গণসচেতনতা।

ফাইল


ছবি


Publish Date

২০২০-০৩-২৩

বিস্তারিত

নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়:

             বাজারে বা দোকানে প্রয়োজন ছাড়া অবস্থান করিবেন না। প্রয়োজনের বাহিরে ঘর থেকে বের হবেন না

             চায়ের দোকান/রেস্টুরেন্ট-এ প্রয়োজন ছাড়া বসিবেন না। প্রত্যেক চায়ের দোকান/রেস্টুরেন্ট এর সামনে পানি এবং হ্যান্ড ওয়াস রাখিবেন।

             হাত ধৌত না করে কাউকে চায়ের দোকান/রেস্টুরেন্টে ঢুকতে দিবেন না।

             চায়ের দোকান/রেস্টুরেন্টে কোন প্রকার টিভি, ভিসিডি,ভিসিআর চালানো যাবে না।

             সকল ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় সাংস্কৃতিক সভা-সমাবেশ ও গণজমায়েত বন্ধ থাকবে।

             শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কোচিং সেন্টার ও বাড়িতে শিক্ষকদ্বারা ব্যাচে প্রাইভেট পড়ানো বন্ধ থাকবে। শিক্ষপ্রতিষ্ঠান বন্ধ অবস্থায় শিক্ষার্থীরা নিজ বাড়িতে অবস্থান করবে।

             সকল ধরণের বিনোদন পার্ক ও পর্যটন কেন্দ্র সমূহ বন্ধ থাকবে।

             গত এক মাসের মধ্যে কেউ বিদেশ থেকে এসে থাকলে তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির পরিবারের সদস্যগণ মসজিদে নামাজ পড়া থেকে বিরত থাকবেন।

             কারো জ্বর হাঁচি-কাশি ইত্যাদি থাকলে মসজিদে নামাজ পড়া থেকে বিরত থেকে নিজ বাড়িতে নামাজ পড়িবেন। একই সাথে মন্দির-চার্চ ইত্যাদিতে সমবেত প্রার্থনা করা থেকে বিরত থাকবেন।

             পরিচিত-অপরিচিতর সাথে হ্যান্ডশেক করা থেকে বিরত থাকুন এবং হাঁচি-কাশিতে রুমাল, টিস্যু অথবা হাতের কনুই ব্যবহার করুন।

             ঘন ঘন সাবান-পানিতে হাত ধৌত করুন।

             বাহির হতে বাসায় প্রবেশের সময় হাতমুখ ধুয়ে প্রবেশ করাসহ অন্যান্য সাবধানতা অবলম্বন করুন।

             ভীর-বনা গণজমায়েত এড়িয়ে চলুন।

             মসজিদ-মন্দিরে প্রয়োজন ছাড়া ভীর জমাবেন না।

             প্রয়োজনে সুন্নত নামাজ ঘরে বসে আদায় করে, শুধু মাত্র ফরজ নামাজ মসজিদে আদায় করিবেন।

             যে সকল মসজিদে কার্পেট বা চাদর বিছানো আছে সে গুলো উঠিয়ে ফেলার জন্য বলা হইল।

             মসজিদে স্যাভলন মিশানো পানি সংরক্ষন করে প্রতি দিন, প্রতি ওয়াক্ত নামাজের সময় ফ্লোর পরিষ্কার করানোর জন্য বলা হইল।

             সমজিদের সম্মুখে সাবান ও পানি রাখার জন্য অনুরোধ করা হইল।

             ক্রামবোর্ডসহ সকল ধরণের লোক জমায়েতকৃত খেলাধুলা বন্ধ করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হইল।

             প্রত্যেক বসতঘরের সামনে ড্রাম/বালতিতে সাবান ও পানি রাখার জন্য এবং হাত ধৌত করে ঘরে প্রবেশ করার জন্য বলা হইল।

             এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে, এলাকা থেকে অন্য এলাকায়, এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলা যাতায়েত সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হইল।

 

মনে রাখবেন পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা এবং সর্তকতাই নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের একমাত্র মাধ্যম। আপনি বাচুঁন এবং অন্যকে বাচঁতে সহায়তা করুন।

 

উপরোক্ত নির্দেশ অমান্যকারীকে মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হতে পারে।

 

প্রচারেঃ

উপজেলা র্নিবাহী অফিসার, কাঠালিয়ার পক্ষে

মোঃ মাহমুদ হোসেন রিপন

চেয়ারম্যান, ৫নং শৌলজালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ, কাঠালিয়া, ঝালকাঠি।

মোবাইল ০১৭৪৯-২৮০০০৩


Share with :

Facebook Twitter